‘সোলার লোটাস’- বিদ্যুতের খরচ বাঁচানোর পাশাপাশি অপরাধ রুখতে এবার সিএমআরআই এর দুর্গাপুর শাখার আবিষ্কার

আমার কথা, দুর্গাপুর, ২১জুনঃ

‘সোলার লোটাস’ অত্যাধুনিক এই যন্ত্রের মাধ্যমে এবার যে কোনো এলাকায় অপরাধ রুখতে এক অনবদ্য ভূমিকা নিতে চলেছে। সিএমআরআই এর দুর্গাপুর শাখার বিজ্ঞানীদের এক অভাবনীয় আবিষ্কার। এই ‘সোলার লোটাস’। পদ্মের আকারে তৈরী এই সোলার লোটাস এমন এক উন্নতমানের টেকনোলজি দিয়ে তৈরী করা হয়েছে যার মধ্যে রয়েছে বেশ কিছু ক্যামেরা। সেই ক্যামেরা অনবরত ছবি আর ভিডিও রেকর্ডিংয়ের কাজ করে যাবে। ফলে আগে সোলার প্যানেল লাগিয়েও চুরি যাওয়ার যে চিন্তা ছিল তার থেকে মুক্তি দেবে এই সোলার লোটাস। এই সোলার লোটাস চুরি করতে আসা ব্যাক্তির ছবি তুলে তা কর্তৃপক্ষকে সাথে সাথে এম এম এস এর মাধ্যমে মোবাইলে ম্যাসেজ পাঠিয়ে সজাগ করে দেবে। পাশাপাশি বিদ্যুতের সাশ্রয় করবে এটি যন্ত্রটি। যদি কখনও বিদ্যুৎহীন হয়ে যায় কোনো এলাকা তাহলে প্রায় ৩-৪ঘন্টার বিদ্যুতের সরবরাহ দেবে এই সোলার লোটাস।

অন্যদিকে সন্তানদের জন্য কর্মজীবি অভিভাবকদের দুঃশ্চিন্তার হাত থেকে মুক্তি দিতে চলেছে এই সোলার লোটাস। অনেক সময়ই পার্কে বিকেলে শিশুদের খেলতে পাঠিয়েও মায়েরা নিশ্চিন্তে থাকতেন পারেন না। চিন্তা থাকে সেই পার্কে তার বাচ্চা সুরক্ষিত আছে কিনা। কোনো দুষ্কৃতির পাল্লায় পড়ল কিনা কিংবা অন্যান্য খেলতে আসা বাচ্চাদের সাথে তার বাচ্চার কোনো সমস্যা হচ্ছে না তো? সেই জায়গা থেকে মুক্তি দিতে এই সোলার লোটাস এক আলাদা ভূমিকা নিতে চলেছে। কোনো পার্কে যদি এই সোলার লোটাস লাগানো হয় তাহলে সেই পার্কের সমস্ত চিত্র ঘরে বসেই মোবাইলের মাধ্যমে মায়েরা পেয়ে যেতে পারেন।

আর সর্বশেষ লক্ষ্য হল এই সোলার লোটাসের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে বিদ্যুতের খরচ বাঁচানো।

আজ পরীক্ষামুলকভাবে দুর্গাপুরের সিএমআরআই কলোনীতে সোলার লোটাস লাগানো হল সিএমআরআই এর দুর্গাপুর শাখার মাধ্যমে।



Spread The Word