লাউদোহায় গৃহবধূর অগ্নিদগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার, পরিবার থেকে এটি খুন বলে দাবি

আমার কথা, দুর্গাপুর, ২১জুনঃ

এক গৃহবধূর রহস্য মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালোদুর্গাপুরের ফরিদপুর থানার অন্তর্গত লাউদোহার লস্করবাঁধ এলাকার বাঙ্গালপাড়ায়। মৃতার নাম পদ্মা রুইদাস(২৮)। আজ দুপুরে তার অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার করে পুলিস। মৃতার পরিবারের থেকে এটি খুন বলে দাবি করছেন।

জানা গেছে, দিনময় রুইদাস ও পদ্মা রুইদাসের এক বছর ও পাঁছ বছরের দুটি সন্তান রয়েছে। দিনময় রুইদাস পেশায় ট্রাকচালক। কাজের সুত্রে তাকে প্রায় সময়ই বাড়ির বাইরে থাকতে হয়। আজ দুপুরে খাওয়া দাওয়ার পর দিনময়ের মা তাদের দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে বাড়ির বাইরে খেলাতে নিয়ে যান। এদিকে দিনময় ও পদ্মা দুজনে ঘরে দরজা বন্ধ করে শুয়ে পড়েন। হঠাৎই এলাকাবাসীরা দেখতে পান দিনময়ের ঘর থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। এরপরেই ঘর থেকে একা বেরিয়ে আসেন দিনময়। খবর যায় থানায়। পুলিশ পৌঁছে দেখে আগুনে সম্পূর্ণ পুড়ে গেছেন ওই গৃহবধূ। এরপর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে মৃতার পরিবারের পক্ষ থেকে মৃতার বৌদি চন্দনা রুইদাস দাবি করছেন যে পদ্মাকে পুড়িয়ে মেরে দেওয়া হয়েছে। বিয়ের পর থেকে গৃহবধূর স্বামী তাকে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিতো। তাদের মধ্যে প্রায় সময়ই অশান্তি হতো দুজনের মধ্যে।

অপরদিকে গৃহবধূর শাশুড়ি দুখী রুইদাস এটিকে খুন বলে মানতে নারাজ। সাথে তিনি এও দাবি করেন যে, দুজনের মধ্যে কোনো অশান্তিই ছিল না। বরং দুজন একে অপরকে বেশ ভালবাসত।

এখন এটি খুন নাকি নিছক আত্মহত্যা তা জানতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।




Spread The Word