নাতনিকে গলায় পা দিয়ে পিষে খুন, ধৃত ঠাকুরদা

আমার কথা, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২নভেম্বরঃ
দেড় মাসের এক শিশু কন্যাকে পা দিয়ে চেপে তারপর খুন করে তাকে মাটিতে পুঁতে ফেলার অভিযোগ ঠাকুরদার বিরুদ্ধে। দিদা সন্ধ্যা বাগ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর অভিযুক্ত ঠাকুরদা দীপক বেরা কে গ্রেপ্তার করার পাশাপাশি মৃত শিশুটিকে কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্ত করা হল। ঘটনা পশ্চিম মেদনীপুর কোতয়ালি থানার নিমতলা এলাকায়। রাতে নিজের বাবা মায়ের কাছে শুয়ে ছিল ওই শিশু কন্যা। অভিযোগ গত পরশু গভীর রাতে ঠাকুরদা দীপক বেরা তার গলায় পা দিয়ে চেপে তাকে খুন করে এবং তারপর গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকাল বেলা মেদিনীপুর শহরের কংসাবতী তীরবর্তী শিশু কবর স্থানে মাটি খুঁড়ে পুঁতে ফেলে সেই মৃত দেহ।
এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শিশুর কোন খোঁজ না পাওয়াতে কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করে দিদা সন্ধ্যা বাগ। তার অভিযোগ ঠাকুরদা দীপক বেহেরা শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে খুন করে তারপর সেখান থেকে দেহ লোপাট করে দেয়। তদন্তে নেমে কোতোয়ালি থানার পুলিশ অভিযুক্ত দীপক বেহেরাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, মেদিনীপুর শহরের কংসাবতী তীরবর্তী একটি এলাকায় মাটি খুঁড়ে মাটির নিচে সেই মৃতদেহ পুঁতে ফেলেছিল সে। আজ সকালে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে কোতোয়ালি থানার পুলিশ ডিএসপি (এডাম) এর নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে যায় তারপর মাটি খুঁড়ে সেই শিশু কন্যার মৃতদেহ সেখান থেকে উদ্ধার করে। অভিযুক্ত দীপক বেরাকে শুক্রবার মেদিনীপুর আদালতে তোলা হ্য। এই ঘটনায় শোকের ছায়া পরিবারে।

Spread The Word