দুর্গাপুরের কাদা রোডে যুবকের গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার

আমার কথা, পশ্চিম বর্ধমান, ১১নভেম্বরঃ
ফের শিল্পাঞ্চলে কারখানায় চুরি, তবে এবারে চুরি করতে গিয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের ছোঁড়া গুলিতে মারা গেল স্থানীয় এক যুবক। ঘটনাটি দুর্গাপুরের কাদা রোড গ্যামন কলোনীর। মৃতের নাম রোহিত সাহানী(১৯)। ঘটনায় আহত আরো এক যুবক, নাম গেরা দাস।
জানা গেছে, ওই এলাকায় একটি বেসরকারী সিমেন্ট কারখানা রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা কেদার আনসারীর বক্তব্য, ওই দুই যুবক গতকাল রাতে চুরি করতে ঢোকে ওই কারখানায়। কারখানার নিরাপত্তারক্ষীরা বিষয়টি টের পেয়ে ওই দুই যুবককে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। গুলি লাগে গেরার পায়ে। যে যুবকের পায়ে গুলি লাগে সে পাঁচিল টপকে পালাতে সক্ষম হয়। সাথে তিনি এও শুনেছেন আজ সকালে চিকিৎসকের কাছে আহত যুবক চিকিৎসাও করিয়েছে। এদিকে একই সাথে রোহিতের গলায় ও পিঠে গুলি লাগলে সে পালাতে পারেনি। তবে কেদারবাবু আরো জানান যে, কারখানার ভেতরে রোহিতের মৃত্যু হয়েছে নাকি নিরাপত্তারক্ষীরা মেরে কারখানার বাইরে দেহ ফেলে দিয়েছে সে বিষয়ে তিনি নিশ্চিত নন, কারন রোহিতের দেহ আজ সকালে কারখানার পেছনে জঙ্গলের ভেতর থেকে উদ্ধার হয়।
প্রসঙ্গতঃ স্থানীয়দের মতে ওই দুই যুবকের বিরুদ্ধে প্রায় সময়ই কারখানার ভেতরে ঢুকে যখন যা পেতো তাই চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ছিল।
ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে ওয়ারিয়া ফাঁড়ির পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠায়। তবে এ বিষয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।
প্রসঙ্গতঃ গত ৮নভেম্বর রাতে কোকওভেন থানার অন্তর্গত রাতুরিয়া শিলতালুকে একটি বেসরকারী কারখানায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে।




Spread The Word