যোগীরাজ্যে ভয়াবহতা, যৌণ হেনস্থার অভিযোগ পুলিশকে জানালে তরুণীকে আগুনে পোড়ালো অভিযুক্তরা

আমার কথা, সীতাপুর, ৩ডিসেম্বরঃ

প্রথমে যৌণ হেনস্থা আর তারপর সেই হেনস্থার অভিযোগ থানায় করতে যাওয়ার মাশুল গুনতে হল এক তরুণীকে। আগুনে ধরিয়ে দেওয়া হয় তরুণীকে। ন্যক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের সীতাপুর শহরে।

নির্যাতিত্তার পরিবারের অভিযোগ, গত বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২৯নভেম্বর, ঐ তরুণী সীতাপুরে তার বাবার বাড়িতে এসেছিলেন। রাজেশ ও রামু নামে ওই গ্রামেরি বাসিন্দা দুই ভাই ওই তরুণীকে যৌণ হেনস্থা করে। এরপর ঐ তরুণী বিষয়টি নিয়ে তমবৌর থানায় লিখিত অভিযোগ জানাতে গেলে থানার আধিকারিকরা তাকে ফিরিয়ে দেন বলে অভিযোগ, ফলে তিনি কনো এফ আই আর দায়ের করতে পারেননি।

এরপর ফের শনিবার ওই দুই অভিযুক্ত তরুণীকে যৌণ হেনস্থা করে। তখন বিষয়টি তহলদারি পুলিশ ভ্যানের কর্মীদের জানালে তারা গ্রামে এসে খোঁজ করেও অভিযুক্তদের ধরতে ব্যার্থ হয়। অভিযোগ এরপর সেদিন রাতে ওই তরুণী আগের খেতে প্রাকৃতিক কাজ সাড়তে গেলে অভিযুক্ত্রা তরুণীর গায়ে কেরোসিন তেল ডক্সহেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পুলিশ সুত্রের খবর, ওই তরুণীর দেহের প্রায় ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। হাসপাতালে এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ওই তরুণী। অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গতঃ আজ সকালেই রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়ে ‘গুন্ডারাজ’ নির্মূল করা গিয়েছে বলে একটি পুস্তিকা প্রকাশ করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নারায়ন। সাথে এই পুস্তিকাতে এও দাবি করা হয়েছে যে, আইন শৃঙ্খলার উন্নতি হয়েছে। কিন্তু তাঁর সেই দাবি যে কতটা ফাঁপা তা তাঁর রাজ্যে ঘটে যাওয়া এই নিন্দনীয় ঘটনা আবারও একবার চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো।



Spread The Word