নিউটাউনশিপ থানার সাফল্য, ব্যাংক ডাকাতির চেষ্টা ও মন্দিরে চুরির ঘটনায় পুলিশের জালে ৩ দুষ্কৃতি

আমার কথা, দুর্গাপুর, ৩জানুয়ারীঃ
দুর্গাপুরের নিউটাউনশিপ থানা এলাকার দুটি অপরাধমুলক ঘটনার সমাধান করল পুলিশ। একটি ডাকাতির চেষ্টার ঘটনার সাতদিনের মধ্যে সমাধান ও একটি মন্দির চুরির ঘটনার ২৪ঘন্টার মধ্যে ধএরা পড়ল দুষ্কৃতিরা। অপরদিকে ১লা জানুয়ারী রাতে ২৪নং ওয়ার্ডের বিধানপল্লী ও এম এ এম সির সিডি এলাকায় দুটি মন্দিরে চুরির ঘটনা ঘটে। তাতে বিগ্রহের গায়ের সোনার গয়না সহ প্রণামী বাক্সের থেকে নগদ অর্থ চুরি করে নিয়ে যায় দুষ্কৃতিরা।
প্রসঙ্গতঃগত ২৯ডিসেম্বর অমরাবতী কলোনী এলাকায় একটি রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকে চুরি করতে ঢোকে তিন দুষ্কৃতি। ভল্ট ভাঙ্গতে গেলে এলার্ম বেজে ওঠে। তারপরেই ভয়ে চম্পট দেয় তারা। এই পুরো ঘটনাটি ব্যাংকের ভেতর লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরাতে বন্দী হয়েছে। তারই সুত্র ধরে নিউটাউনশিপ থানার পুলিশ নামে তদন্তে। পুলিশ তদন্তে নেমে প্রথমে ব্যাংকের বাইরে দুষ্কৃতিদের ফেলে যাওয়া একটি ব্যাগ ও একটি রুমাল পায়। তার সুত্র ধরে শুরু হয় তল্লাশী।
গতকাল রাতে অমরাবতীর আম্মা কলোনী থেকে প্রথমে একজনকে আটজক করে পুলিশ। এরপর তাকে জেরা করে বাকী আরো তিনজনের সন্ধান মেলে। ধৃতরা হল আকাশ বাউড়ি(২১), অষ্টম বাউড়ি(২৩) ও বিষ্ণু ক্ষেত্রপাল। ধৃতদের মধ্যে বিষ্ণুই ছিল মাষ্টার মাইন্ড। এর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে অস্ত্র মামলায় কেস রয়েছে। পুলিশ সুত্রের খবর, এই ধৃতদের জেরা করে জানা গেছে, এই ঘটনার সাথে আরো তিন চারজন যুক্ত রয়েছে। তাদের খোঁজেও তল্লাশী চালানো হচ্ছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে ৩৭৯ ও ৫১১ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। আজ ধৃতদের সাতদিনের পুলিশী হেফাজতের আবেদন করে দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়।




Spread The Word