দুর্গাপুরে ‘আয়ুষ্মান ভারত’ এর কার্ড বিলি নিয়ে বচসার জেরে জখম তৃণমূলের ওয়ার্ড সভাপতি

আমার কথা, দুর্গাপুর, ১৩জানুয়ারীঃ
কেন্দ্র সরকারের প্রকল্প ‘আয়ুষ্মান ভারত’ এর কার্ড বিলি করাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ালো দুর্গাপুরের ২১ নং ওয়ার্ডের চাষীপাড়ায়। এই প্রকল্পের কার্ড ছিঁড়ে দেওয়ার সাথে সাথে পিয়নকে হেনস্থার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনার জেরে স্থানীয়দের হাতে প্রহৃত হয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি হতে হয়েছে তৃণমূলের ওয়ার্ড সভাপতি তাপস সাহাকে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, আজ পোষ্টঅফিস থেকে একজন পিয়ন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ছবি ছাপানো “আয়ুষ্মান ভারত” নামে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতাধীন স্বাস্থ্যবীমার কার্ড বিলি করতে এসেছিল এলাকায়। অভিযোগ সেই সময় তাপসবাবু ওই পিয়নকে কার্ড বিলিতে বাধা দেন, সাথে কার্ড ছিঁড়েও দেন। এরপরেই এলাকাবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাপসবাবুর ওপর চড়াও হয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ। মারধরের চোটে মাথা ফেটে যায় তাপসবাবুর। তাকে সিটি সেন্টারে একটি নার্সিংহোমে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে তাপসবাবুর বক্তব্য, “আমার কাছে খবর আসে চাষীপাড়ায় আয়ষ্মানের কার্ড বিলি করছে পিয়ন। কিন্তু রবিবার কি করে পোষ্ট অফিসের কাজ হয়? তাই আমার সন্দেহ হওয়ায় আমি গিয়ে ওই ব্যাক্তিকে জিজ্ঞেস করাতে বলা হল আয়ুষ্মানের কার্ড বিলি করা হচ্ছে। আমি গিয়ে দেখলাম কোনো কার্ড নয় চিঠি বিলি করা হচ্ছে। তখন আমি বললাম যে, আমাদের সরকার এই রাজ্যের নাম আয়ুষ্মান প্রকল্প থেকে প্রত্যাহার করেছে। সেখানে এভাবে চিঠি বিলি করলে বিভ্রান্তি ছড়ানো হবে আর পুরো দায় এসে আমাদের ওপরে পড়বে যে, কার্ড পেলাম কিন্তু কোনো চিকিৎসা হচ্ছে না। এরপরেই ৮-১০জন আমার ওপর লাঠিসোটা নিয়ে চড়াও হয়। ওরা সকলেই বিজেপির লোক ছিল।”
তৃণমুলের পশ্চিম বর্ধমান জেলার কার্যকরী সভাপতি উত্তম মুখার্জীর দাবি, “আয়ুষ্মানের কার্ডের বিষয়ে তৃণমুলের ছেলেরা মানুষজনকে আগে থেকেই বুঝিয়েছিল। তাই ওই এলাকার লোকজন আয়ুষ্মানের কার্ড নিতে অস্বীকার করায় বিজেপির লোকজন রাগে ওয়ার্ড সভাপতি তাপসের ওপর চড়াও হয়ে তাকে মারধর করে। আমরা জানি যত লোকসভা ভোট এগিয়ে আসবে প্রধানমন্ত্রী এভাবেই অশান্তি বাধানোর চেষ্টা করছেন। এর তীব্র প্রতিবাদ করছি।”
অপরদিকে বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোরুই বলেন যে, “গরীব মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী ৫লক্ষ টাকার আয়ুষ্মান ভারত নামে স্বাস্থ্যবীমা এনেছেন। ২১নং ওয়ার্ডে তৃনমুলেরে লোকজন এই কার্ড বিলির জন্য পিয়নকে মারধর করেছে। গরীব মানুষ সেটা বুঝতে পেরে প্রতিবাদ জানিয়েছে। পিয়নকে মারধর করার জন্য তারা ঘুরে তৃণমুলের লোকজনকে মারধর করেছে।”




Spread The Word