নাকাতে বসছে সিসিটিভি, নির্বাচনী বৈঠকে জানালেন দুর্গাপুরের মহকুমা শাসক

আমার কথা, দুর্গাপুর, ১১মার্চঃ

লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট প্রকাশিত হয়েছে রবিবার, আর তারপরেই জোর কদমে প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে বিভিন্ন স্তরে। দুর্গাপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে নির্বাচনী প্রস্তুতি ও নির্বাচনী বিধি নিষেধ সম্বন্ধে জানানো হল আজ। এবারের নির্বাচনে রাজ্যে ৭দফায় ভোট গ্রহন হবে, যার মধ্যে চতুর্থ দফায় ভোট হবে আসানসোল দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের। ২৯ এপ্রিল নির্বাচনের জন্য আগের দিন অর্থাৎ ২৮ এপ্রিল নির্বাচন কর্মীরা দুর্গাপুর গভর্মেন্ট কলেজে একত্রিত হবেন। সেখানেই রাখা থাকবে ব্যালট বক্স ও ইভিএম যন্ত্র। এরপর নির্বাচনের দিন ভোটকর্মীরা পান্ডবেশ্বর, রানীগঞ্জ, দুর্গাপুর পূর্ব ও পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বুথগুলিতে চলে যাবেন। সমস্ত বুথগুলিতে বুথকর্মীদের জন্য শৌচাগার ও পানীয় জলের সুবন্দোবস্ত করা হচ্ছে।

আজ দুর্গাপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরে সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে নিয়ে একটি বৈথক করা হয় যেখানে প্রত্যেকটি দলকে নির্বাচনী বিধি নিয়ম নিয়ে ওয়াকিবহাল করা হয়। পাশাপাশি তাদের এও জানানো হয় যে, নির্বাচনী প্রচারে যেন পরিবেশ  রকম দূষিত নাহয় তার দিকেও বিশেষভাবে দলগুলিকে নজর রাখতে হবে।

এর পাশাপাশি নির্বাচনে যাতে কোনোরকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য পুলিশ প্রশাসনকেও বিশেশভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। দুর্গাপুর মহকুমা অন্তর্গত ৮টি থানায় নাকা চেকিংয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। দুর্গাপুর থানায় ২টি, নিউটাউনশিপ থানায় ৩টি, কোকওভেন থানায় ৩টি, কাঁকসা থানায় ৪টি, বুদবুদ থানায় ১টি, অন্ডাল থানায় ৩টি, ফরিদপুর থানায় ৫টি ও পান্ডবেশ্বর থানায় ১টি নাকা চেকিংয়ের বন্দোবস্ত করা হয়েছে। এছাড়াও বিশেষ নজরদারির জন্য এই নাকা চেকিংগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

তবে শুধু তাই নয়, বিশেশ নজরদারি রাখা হবে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতেও। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় যাতে কোনো প্ররোচনামূলক পোস্ট নাহয় তার দিকেও নজরদারি করা হবে বলে জানা গেছে।

এবারের নির্বাচনে ২০১৯ এর ১৪ই জানুয়ারীর জনসংখ্যার নিরীখে ভোটার সংখ্যা পান্ডবেশ্বর বিধানসভায় ১লক্ষ ৯৮হাজার ৫শ’ ৬৫জন, রানীগঞ্জ বিধানসভায় ২লক্ষ ৩৭হাজার ৯শ’ ৭১জন, দুর্গাপুর পূর্বে ২লক্ষ ৪৩হাজার ১শ” ৫৫ ও দুর্গাপুর পশ্চিমে ২ লক্ষ ৫৪হাজার ৮শ’ ৫২জন।

Spread The Word