স্বাধীন ভারতের প্রথম দিন থেকে ভোট দিচ্ছেন দুর্গাপুরের শতায়ু ভোটার শেফালীদেবী, এবারেও যাবেন

আমার কথা, দুর্গাপুর, ৯এপ্রিলঃ
স্বাধীন ভারতে যেদিন থেকে সাধারন মানুষ তাঁর গণতান্ত্রিক মত প্রকাশ করার অধিকার পেলেন অর্থাৎ ভারতে যেদিন থেকে নির্বাচন শুরু হল সেদিন থেকেই রীতিমতো লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিয়ে আসছেন  ১০৪ বছর বয়সী শেফালী সমাদ্দার। দুর্গাপুর মহকুমায় যে তিনজন শতায়ু ভোটার আছেন তাদের মধ্যে একজন এই শেফালীদেবী। দুর্গাপুরে ২১নং ওয়ার্ডের বেনাচিতির নেতাজী নগরের বাসিন্দা শেফালীদেবীর সাবলীল চলাফেরায় বয়স প্রতিবন্ধকতা তৈরি করলেও মনের জোরের কাছে হার মেনেছে তাঁর বয়স। তাই জোরের সাথে জানালেন যে, ভোট দিতে তিনি অবশ্যই যাবেন। সেই প্রথম দিন থেকে তিনি ভোট দিয়ে আসলেও এখনও পর্যন্ত্য  কতবার যে ভোটের মাধ্যমে মত প্রকাশ করেছেন তা আজ আর মনে নেই। প্রতিবার রিক্সা করে ভোট দিতে গেলেও এবারের ভোট শেফালীদেবীর কাছে একটু আলাদা। কারন এবার খোদ নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে গাড়ির ব্যবস্থা করা হবে। অর্থাৎ বাড়ি থেকে গাড়ি করে শেফালীদেবীকে তুলে নিয়ে যাওয়া হবে ভোটদান কেন্দ্রে, সাথে এও ব্যবস্থা করা হবে যাতে শেফালীদেবীকে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিতে না হয় তারও প্রতিশ্রুতি দেন মহকুমা শাসক। আজ মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে, ডেপুটি লেবার কমিশনার(দুর্গাপুর) অরুণিমা বিশ্বাস, ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অভিজিৎ সামন্ত সহ আরো অন্যান্য আধিকারিকরা আজ শেফালীদেবীর বাড়ি যান। দেখা করেন ওনার সাথে। শরীরের হাল হকিকতের খোঁজ খবর নেন। সাথে তাঁকে নিশ্চিন্তে ভোটদানে আশ্বস্ত করেন।
ডেপুটি লেবার কমিশনার(দুর্গাপুর) অরুণিমা বিশ্বাস জানান যে, কাঁকসা ব্লকের অন্তর্গত স্বরস্বতীগঞ্জের হারাধন সাহা ও গোপালপুরের নফর রায়, এরা দুজনেই একশ  বছর অতিক্রম করেছেন। আজ তাদের সাথেও দেখা করা হয়। তাদের জন্যও গাড়ির ব্যবস্থা করা হবে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে।

Spread The Word