দুর্গাপুরের ব্যবসায়ী গুড্ডুর বিরুদ্ধে লড়াই-এ এবার মেয়ের পাশে মা

আমার কথা, দুর্গাপুর, ১৩সেপ্টেম্বরঃ
এবার মেয়ের যুদ্ধে সামিল হলেন মা। দুর্গাপুরের নামী ব্যবসায়ী গুড্ডুর দ্বারা প্রতারিত পুরুলিয়ার যুবতীর পাশে এসে দাঁড়ালেন তাঁর মা। আজই তিনি পুরুলিয়া থেকে দুর্গাপুরে আসেন। দুর্গাপুরে এসে তিনি মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে যান গুড্ডুর বাড়িতে। সেখানে তিনি মেয়ের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনার প্রতিবাদ করেন সাথে তিনি গুড্ডুর সাথে দেখা করতে চান। তিনি মেয়ের সাথে হওয়া অন্যায়ের বিচার চান। তিনি বলেন, “গুড্ডু আমার মেয়ের জীবন নষ্ট করেছে। গত ৮বছর ধরে ওর সাথে সব রকমভাবে মেলামেশা করে আজ গুড্ডু পিছিয়ে যাচ্ছে। এটা আমি কিছুতেই হতে দেবো না।” যদিও গুড্ডুর স্ত্রী বাড়ি ফিরে এলেও এখনও অধরা গুড্ডু।
এদিকে পুরুলিয়ার ওই যুবতী ও তাঁর মা যখন গুড্ডুর বাড়িতে যান তখন পুলিশের উপস্থিতিতে গুড্ডুর স্ত্রী ও তাদের আত্মীয়া কয়েকজন মহিলা মিলে ওই যুবতী ও তাঁর মাকে মারধর করে বলে অভিযোগ উঠছে। তবে শেষ পাওয়া খবরে মারধর খাওয়ার পরেও ওই যুবতী ও তাঁর মা গুড্ডুর বাড়িতে ধর্নায় বসে রয়েছেন ন্যায় বিচারের আশায়।
এদিকে গুড্ডুর স্ত্রীর অভিযোগ পুরুলিয়ার ওই যুবতী ও তাঁর মা তাঁকে মারধর করে ঘর থেকে বের করে দিয়ে নিজেরা ঘর দখল করে বসে আছে।
প্রসঙ্গতঃ দুর্গাপুরের শরৎচন্দ্র অ্যাভিন্যু-র ‘গুড্ডু অটো ওয়ার্ল্ড’-র মালিক আফরোজ আখতার ওরফে গুড্ডু-র বিরুদ্ধে অভিযোগ, পুরুলিয়ার এক যুবতীর সাথে দীর্ঘ ৮বছর ধরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস তারপর সেই প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ। এরপর থেকেই ওই যুবতী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন ন্যায়বিচারের আশায়।

Spread The Word